ব্রেকিং নিউজ

মোহাম্মদপুরের কয়েকটি হাসপাতালে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, জেল-জরিমানা

news-details
জাতীয়

আমাদের প্রতিবেদক :

রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধীন কয়েকটি হাসপাতালে অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে শ্যামলীতে অবস্থিত হাইপো থাইরয়েড সেন্টার নামের একটি প্রতিষ্ঠানের দুই টেকনিশিয়ানকে দুই বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এরা হলেন সোহেল রানা (৩৪) ও মো. রাসেল (২১)।

এসময় প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। হাইপোথাইরয়েড সম্পর্কিত হরমনাল টেস্টের জালিয়াতির অভিযোগ আনা হয়েছে হাসপাতালটির বিরুদ্ধে।

এছাড়া মোহাম্মদপুরের বাবর রোডে অবস্থিত অপর একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এসময় সেখানকার দুই দালালকে কারাদণ্ড দেন র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

আজ শনিবার (৭ নভেম্বর) সাড়ে ১০টায় শুরু হয় এ অভিযান।

জানা গেছে, সকালে প্রথমেই রাজধানীর শ্যামলীর ১ নম্বর রোডের ২/১ অনিক ভিলার তিনতলায় অবস্থিত 'হাইপো থাইরয়েড সেন্টার'-এ অভিযান চালান র‍্যাব-২-এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‍্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারওয়ার আলম।

ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারওয়ার আলম বলেন, প্রথমেই শ্যামলীর 'হাইপো থাইরয়েড সেন্টার'-এ অভিযান চালানো হয়। এসময় সেখানকার দুই টেকনিশিয়ানকে দুই বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। হাইপোথাইরয়েড সম্পর্কিত হরমনাল টেস্টের জালিয়াতির দায়ে প্রতিষ্ঠানটির দুই টেকনিশিয়ানকে দুই বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিতে প্রয়াত ডা. মনিরুজ্জামানের স্বাক্ষর ব্যবহার করে ল্যাব রিপোর্ট দেওয়া হতো।

সারওয়ার আলম আরো বলেন, হাইপো থাইরয়েড সেন্টারের মালিক আব্দুল বাকের পলাতক। মালিকের বিরুদ্ধে নিয়মিত আইনে মামলা হবে।

সারওয়ার আলম জানান, এর পর অভিযান চালানো হয় মোহাম্মদপুরের বাবর রোডে অবস্থিত সন্ধি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে। সেখানে  অনিয়মের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় সেখানকার দুই দালালকে ছয় মাস করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তিনি আরো জানান, সকাল সাড়ে ১০টায় অভিযান শুরু হয়েছে। অভিযান এখনো চলছে, শেষ হলে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে। 


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।